default-image

গাজীপুরে মহিলা, শিশু ও কিশোরী হেফাজতিদের নিরাপদ আবাসন কেন্দ্র (সেফ হোম) থেকে ১৪ কিশোরী পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ছায়েদুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তদন্ত কমিটির প্রধান মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এবং মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের পরিচালক মনোয়ারা ইসরাত। সদস্যরা হলেন ওই আবাসন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়ক ফরিদা খানম, উপসচিব জগদিশ দেবনাথ, গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালাম ও গাজীপুর জেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) শাহনাজ আক্তার। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটিকে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

হেফাজতিদের আবাসন কেন্দ্র পরিদর্শনকালে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ছায়েদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, এ কেন্দ্রে একজন পূর্ণকালীন তত্ত্বাবধায়ক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কিশোরী হেফাজতি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় দায়িত্বে কোনো অবহেলা থাকলে তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ কেন্দ্রের নিবাসীদের খাবারের মান আরও বৃদ্ধি, কেন্দ্রের নিরাপত্তা বৃদ্ধিসহ সার্বিক বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গতকাল বুধবার গভীর রাতে ওই কেন্দ্রের ভবনের তিনতলার জানালার গ্রিল ভেঙে ওড়না দিয়ে রশি বানিয়ে ১৪ জন কিশোরী পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই সাতজনকে আটক করে। এ ঘটনায় ওই কেন্দ্রের স্টোরকিপার আবদুর রহমান মোল্লা বাদী হয়ে ১৪ জনকে আসামি করে বাসন থানায় মামলা করেছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন