বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাদীপক্ষের আইনজীবী জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, গাজীপুর চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) তদন্তের জন্য পাঠিয়েছেন। তদন্ত শেষে আদালতের মাধ্যমে পরবর্তী সময়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মামলার বাদী মনজুর মোর্শেদ জানান, ১ ডিসেম্বর মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানের একটি সাক্ষাৎকার নেন। সেখানে মুরাদ হাসান তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমান সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ, নারীবিদ্বেষী ও মানহানিকর ভাষা ব্যবহার করেছেন, যা পরবর্তী সময় মুরাদের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে প্রচার করা হয়। উদ্দেশ্যমূলকভাবে মিথ্যা তথ্য ও বক্তব্য দিয়ে জিয়াউর রহমানের পরিবার এবং তাঁর পরিবারের কনিষ্ঠতম সদস্য জাইমা রহমানকে সমাজিক ও ব্যক্তিগতভাবে অপমান, অপদস্থ ও হেয়প্রতিপন্ন করার জন্যই ভিডিওটি প্রকাশ হয়, যা সার্বিকভাবে জিয়া পরিবারসহ পুরো নারীসমাজের জন্য মানহানিকর ও অপমানজনক।

মনজুর মোর্শেদ বলেন, মুরাদ বাংলাদেশ সংবিধান অনুযায়ী যে শপথ গ্রহণ করেছিলেন, তা ক্রমাগতভাবে নানাবিধ বক্তব্য ও কর্মকমাণ্ডের মাধ্যমে লঙ্ঘন করেছেন। তাই এসব ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য তিনি এ মামলার আবেদন করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন