default-image

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কামারদহ ইউনিয়নের নয়াপাড়া গ্রামের একটি বাড়িতে বিস্ফোরণে তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে বোমা বিশেষজ্ঞ দল। ঢাকা থেকে আসা ১১ সদস্যের দলটি আজ বৃহস্পতিবার সকাল নয়টা থেকে ওই বাড়িতে তদন্তকাজ শুরু করে। দলটির সদস্যরা জানান, তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।

এ ঘটনায় আজ বেলা পৌনে ১১টা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। তবে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করেছে পুলিশ। গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারাপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদী হাসান বলেন, ঘটনার কারণ এখন বলা যাচ্ছে না। এ ঘটনায় বগুড়ার শিবগঞ্জের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনার বিষয়ে জানা গেলে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হবে।

গতকাল বুধবার বিকেলে বিস্ফোরণের ঘটনার পর থেকে নয়াপাড়া গ্রামে থমথমে অবস্থা দেখা যাচ্ছে। গ্রামবাসীর মধ্যে দেখা দিয়েছে আতঙ্ক। গ্রামের বাসিন্দা শাহাজাহান মিয়া বলেন, শান্ত গ্রামটি এখন আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।

বিজ্ঞাপন
default-image

গতকাল বিকেল সাড়ে চারটার দিকে হঠাৎ দু–তিনজন অপরিচিত ব্যক্তি গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের বোরহান উদ্দিনের বাড়িতে যান। এর কিছুক্ষণ পর বাড়ির মধ্যে শোরগোল ও বিকট শব্দ শোনা যায়। এ সময় বিস্ফোরণে বোরহান উদ্দিনের একটি ঘরের টিনের চাল উড়ে যায়। এ ঘটনায় নয়াপাড়া গ্রামের কাশেম আলীর ছেলে বাড়ির মালিক বোরহান উদ্দিন প্রধান (৩৬), একই গ্রামের কবির মিয়ার ছেলে অহেদুল ইসলাম (৩৫) ও একই উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের কুমিড়াডাঙ্গা গ্রামের তৈয়ব আলীর ছেলে রানা মিয়া (২৯) নিহত হন। এর মধ্যে বিস্ফোরণে রানা মিয়ার বুক ছিদ্র হয়ে গেছে। তাঁর বাঁ হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন পাঁচজন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন