বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিপ্লব ঘোষ প্রথম আলোকে বলেন, মোহাম্মদ আলী মিয়া দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ছোটভাকলা ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন। যেহেতু তিনি দলীয় সিদ্ধান্ত না মেনে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন, সে কারণে দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাঁকে দল থেকে বহিষ্কারর করা হয়েছে।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগদান করেছিলেন মোহাম্মদ আলী মিয়া। এর আগে তিনি গোয়ালন্দ উপজেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও ছোটভাকলা ইউপিতে দুবার চেয়ারম্যান ছিলেন। ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য ছোটভাকলা ইউপি নির্বাচনে তিনি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। নির্বাচনে তাঁর একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ–মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন।

জানতে চাইলে মোহাম্মদ আলী মিয়া মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমার জনপ্রিয়তার কারণে আমি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি। আমি আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে নির্বাচন করছি না। দলীয়ভাবে প্রার্থী বাছাই করার আগে দলীয় কোনো সভায় আমাকে জানানো হয়নি। জানতে পারলে অবশ্যই দলের কাছে মনোনয়ন চাইতাম। কেন্দ্রে আমার নাম পাঠানোর পর সেখান থেকে দল মনোনয়ন না দিলে আমি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতাম না।’ সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তাঁর বিজয় শতভাগ নিশ্চিত বলে তিনি দাবি করেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন