বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও ঘাটসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, গতকাল সাবরিনা সুলতানা (২২) তাঁর ভাইয়ের দুই ছেলেমেয়েকে নিয়ে চুয়াডাঙ্গা থেকে সিডি ডিলাক্স পরিবহনের একটি বাসে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। তাঁদের বাসটি ওই দিন দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া ক্যানেল ঘাটসংলগ্ন এলাকায় এসে যানজটে আটকা পড়ে। রাত দেড়টার দিকে সাবরিনার ভাইয়ের মেয়ে মোস্তারী (১০) টয়লেটে যেতে চাইলে সাবরিনাও তার সঙ্গে বাস থেকে নামেন।

এ সময় দুই থেকে তিনজন ছিনতাইকারী ধারালো অস্ত্রের মুখে সাবরিনার কাছ থেকে তাঁর ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যান। সাবরিনা চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ছিনতাইকারীরা সেখান থেকে পালিয়ে যান। পরদিন সকালে সাবরিনা এ ঘটনায় গোয়ালন্দ ঘাট থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

পুলিশ জানায়, ওই তরুণীর অভিযোগের পর পুলিশ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে। পরে আজ ভোরে পুলিশ দৌলতদিয়া ঘাট এলাকা থেকে আশিক মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাঁর কাছ থেকে মুঠোফোন, টাকা ও একটি ধারালো চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা স্বপন কুমার মজুমদার বলেন, আশিক মোল্লা একজন চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও ছিনতাইকারী দলের সক্রিয় সদস্য। গত সপ্তাহে তাঁকে গ্রেপ্তার করে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছিল। তিন দিন আগে জামিনে বের হয়ে তিনি আবার ছিনতাই, মাদকসহ নানা অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। আশিকের বিরুদ্ধে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় ছিনতাই, মাদক, চুরিসহ ১২টি মামলা রয়েছে। আজ সকালে তাঁকে রাজবাড়ীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন