এ বিষয়ে বরিশাল-১ আসনের সাবেক সাংসদ ও বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক জহির উদ্দিন স্বপন বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চাঁদরাতে (সোমবার) তাঁর বাড়িতে আসার কথা ছিল। নিজ গ্রাম সরিকলে ঈদের নামাজ আদায়, বাবার কবর জিয়ারত ও স্থানীয় নেতা-কর্মীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে বিকেলে বরিশাল ফেরার কথা ছিল। কিন্তু গতকাল রাতে সরিকল বাজারে আওয়ামী লীগের কয়েক শ নেতা-কর্মী মহড়া দিয়ে তাঁকে গ্রামে যাতে বাধা ও প্রতিরোধের কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। তাই সহিংসতা এড়াতে তিনি বাড়িতে যাওয়ার কর্মসূচি বাতিল করেছেন।

default-image

সরিকল ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান অভিযোগ করেন, গতকাল রাত নয়টার দিকে গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌরসভার মেয়র হারিছুর রহমানের নেতৃত্বে দলের ১০০ থেকে ১৫০ জন মোটরসাইকেলে করে দেশি ধারালো অস্ত্র নিয়ে সরিকল ইউনিয়নের বিভিন্ন সড়কে মহড়া দেন। তাঁরা সরিকল বাজারে সমাবেশ করে জহির উদ্দিন স্বপনকে এলাকায় ঢুকতে যেকোনো মূল্যে প্রতিহত করার ঘোষণা দেন। সমাবেশে তাঁর বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে জানতে হারিছুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। গৌরনদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচ এম জয়নাল আবেদীন বলেন, ঈদের পরের দিন বুধবার সরিকল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের পুনর্মিলনী সভা হবে। গতকাল সরিকল বন্দরে দলীয় কার্যালয়ে এর প্রস্তুতি সভা হয়। সভা শেষে বন্দরে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে মিছিল বের করা হয়। বিএনপি নেতাদের অভিযোগ সঠিক নয়। তাঁরা কাউকে প্রতিরোধের কথা বলেননি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন