বিজ্ঞাপন
default-image

পুলিশ বলছে, উপজেলার কমলাপুর গ্রামের মিন্টু মৃধা (৩৫) ও তাঁর ভাবি রওশনারা বেগমকে (৪০) দুস্থ নারীদের খাদ্যসহায়তা কর্মসূচির (ভিজিডি) সুবিধাভোগী হিসেবে যৌথভাবে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে একটি কার্ড বরাদ্দ করা হয়। তাঁরা প্রতি মাসে ভিজিডির চাল উত্তোলন করে সমানভাবে ভাগ করে নিতেন। গতকাল মঙ্গলবার সকালে রওশনারার ছেলে রামিন মৃধা চাচা মিন্টু মৃধার কাছে ভিজিডির কার্ড ফেরত চান। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে মিন্টু মৃধা কাঠ দিয়ে ভাতিজা রামিন মৃধার মাথায় আঘাত করেন। এর জেরে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে আরও পাঁচজন আহত হন।

গুরুতর অবস্থায় রামিন মৃধাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে গতকাল রাতে তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়। ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ বুধবার ভোররাতে তিনি মারা যান।

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আফজাল হোসেন জানান, আজ সকালে রামিন মৃধার স্ত্রী রুমা বেগম থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন। পুলিশ এজাহারভুক্ত আসামিদের মধ্যে তোফাজ্জল মৃধা নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন