default-image

সিলিন্ডারের লিকেজ থেকে রান্নাঘরে গ্যাস জমে গিয়েছিল। রান্নার জন্য চুলায় আগুন দিতেই তা পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। দগ্ধ হন বাড়ির কর্তা শফিকুল ইসলাম (৩৫)। আজ বৃহস্পতিবার সকাল নয়টার দিকে ফরিদপুর পৌর সদরের বাঁকাইলে এ ঘটনা ঘটে। তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

শফিকুল ইসলাম ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা সিটি ব‍্যাংক শাখার কাস্টমার সার্ভিস ম‍্যানেজার। বাড়ি শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার মহিশাল গ্রামে।

তিনি স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে বাঁকাইলে ভাড়া বাসায় থাকতেন। সপ্তাহখানেক আগে স্ত্রী–মেয়েকে নিয়ে বাবার বাড়িতে বেড়াতে যান। শফিকুল একাই বাসায় ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নাজমুল হাসান জানান, আগুনে শফিকুলের শরীরের প্রায় ৩৫ শতাংশ পুড়ে গেছে। অগ্নিদগ্ধ রোগীদের সুচিকিৎসার সুযোগ ফরিদপুরে নেই বলে তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

ব্যাংকের আলফাডাঙ্গা শাখার সহকারী ভাইস প্রেসিডেন্ট এম ডি রবিউল ইসলাম জানান, কোনোভাবে সিলিন্ডারের গ্যাস লিক হয়ে রান্নাঘর ভর্তি হয়ে ছিল। সকালে শফিকুল গ্যাসের চুলা জ্বালাতে গেলে পুরো ঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এতে পুড়ে যান তিনি।

আলফাডাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাঁকে জরুরি ভিত্তিতে দুপুর সোয়া ১২টার দিকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন