default-image

সিলেট এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে শুক্রবার রাতে তরুণী ধর্ষণের ঘটনায় প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্য দিতে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল কলেজের তদন্ত কমিটি। মঙ্গলবার বিকেলে ওই ঘটনার একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষ্য দিতে এসেছিলেন। কিন্তু তিনি এ সময় মৌখিকভাবে কোনো সাক্ষ্য না দিয়ে পরে লিখিতভাবে তদন্ত কমিটির কাছে সে ঘটনার বর্ণনা উপস্থাপন করবেন বলে জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

এর আগে গত রোববার কলেজ প্রশাসনের গঠন করা তিন সদস্যের তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক মো. আনোয়ার হোসেন চৌধুরী স্বাক্ষরিত ও কলেজের অধ্যক্ষ মো. সালেহ আহমদ প্রতিস্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৫ সেপ্টেম্বর কলেজ ছাত্রাবাসে সংঘটিত অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় যাঁরা প্রত্যক্ষদর্শী, তাঁদের আজ মঙ্গলবার বেলা তিনটায় কলেজের শিক্ষাবিদ সম্মেলনকক্ষে উপস্থিত হয়ে সাক্ষ্য দিতে অনুরোধ করা হলো।
কলেজ সূত্র জানায়, ঘটনার পরদিন শনিবার কলেজের একাডেমিক কাউন্সিলের জরুরি সভায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে কলেজের গণিত বিভাগের প্রধান মো. আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক করা হয়। কমিটির সদস্য হিসেবে রয়েছেন রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জীবন কৃষ্ণ ও জামাল উদ্দিন।

বিজ্ঞাপন

কলেজের অধ্যক্ষ মো. সালেহ আহমদ প্রথম আলোকে বলেন, সাত কার্যদিবসের মধ্যে এ কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশনা রয়েছে। এরই মধ্যে কমিটি কাজ শুরু করেছে। এর অংশ হিসেবে আজ প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্য নেওয়ার কথা।

তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক মো. আনোয়ার হোসেন চৌধুরী প্রথম আলোকে জানান, আজ বিকেল সোয়া চারটার দিকে একজন প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষ্য দিতে এসেছিলেন। তিনি সেদিনের ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন বলে তদন্ত কমিটিকে জানিয়েছেন। তবে তিনি আজ মৌখিকভাবে কিছুই জানাননি। পুরো বিষয়টি তিনি লিখিতভাবে শিগগিরই তদন্ত কমিটির কাছে উপস্থাপন করবেন বলে কথা দিয়েছেন। এর বাইরে পুরো ঘটনা অনুসন্ধানে অন্যান্য বিষয়েও তদন্ত শুরু হয়েছে।

গত শুক্রবার স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে গণধর্ষণের শিকার হন এক তরুণী। এ ঘটনায় ছয়জনের নাম উল্লেখ করে মোট নয়জনের বিরুদ্ধে ওই তরুণীর স্বামী শাহপরান থানায় মামলা করেন।

মন্তব্য পড়ুন 0