বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া কার্যালয় জানায়, গতকাল রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কুয়াশা বাড়তে থাকলে রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচলে হিমশিম খেতে হয়। হেডলাইট জ্বালিয়েও ঠিকমতো দেখা যাচ্ছিল না। নদী অববাহিকায় কুয়াশার কারণে নৌযান চলাচল মারাত্মক বিঘ্নিত হয়। অতিমাত্রায় ঘন কুয়াশা পড়তে থাকলে দুর্ঘটনা এড়াতে কর্তৃপক্ষ রাত দেড়টা থেকে ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেয়। এর আগে উভয় ঘাট থেকে ছেড়ে যাওয়া ছোট-বড় একাধিক ফেরি ঝুঁকি নিয়ে দ্রুত ঘাটে পৌঁছায়। পরের দিন আজ সকাল ১০টার পর কুয়াশা কমতে থাকলে সোয়া ১০টার দিকে দৌলতদিয়ার ৫ নম্বর ঘাট থেকে প্রথম ইউটিলিটি ফেরি মাধবীলতা ছেড়ে যায়। এরপর একে একে ঘাট থেকে রো রো ফেরি শাহ জালাল, খানজাহান আলীসহ অন্যান্য ফেরি ছেড়ে যায়। সাড়ে ১০টার দিকে পাটুরিয়া থেকে ছেড়ে আসা ইউটিলিটি ফেরি শাপলা শালুক ঘাটে এসে ভেড়ে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ঘাট থেকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোয়ালন্দের পৌর জামতলা পর্যন্ত প্রায় ৭ কিলোমিটার লম্বা ৮ শতাধিক গাড়ির লাইন। এর মধ্যে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী গাড়ি, কাভার্ড ভ্যানসহ ব্যক্তিগত গাড়ি রয়েছে। ফেরিঘাট এলাকার প্রায় সাড়ে চার কিলোমিটার দুই লাইনে গাড়ি রয়েছে। দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকায় অনেকে ফেরিতে নদী পাড়ি দিয়ে পাটুরিয়া থেকে বিকল্প পরিবহনে ঢাকা যান। টিকিট কাউন্টারের সামনে ব্যক্তিগত গাড়ির লাইন। টিকিট নিতে চালকদের বিশাল লাইন দেখা যায়।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর থেকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সোয়া ৬টায় ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে আসা কিংফিসার গাড়ির সুপারভাইজার মো. মমিন উদ্দিন বলেন, ‘রাত সাড়ে ১২টার দিকে সিরিয়ালে আটকা পড়ি। রাত দেড়টার দিকে জানতে পারি কুয়াশায় ফেরি বন্ধ হয়ে গেছে। ফেরি বন্ধ থাকলে এমনিতে রাতভর যানজটে আটকে থাকতে হয়। এরপর পরিবহনের দুই যাত্রীকে ছিনতাইকারীরা ছুরিকাহত করে মালামাল ছিনিয়ে নেয়।’

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক জামাল হোসাইন বলেন, ফেরির সংকটের মধ্যে গতকাল রো রো ফেরি ভাষাসৈনিক গোলাম মাওলাকে ডকইয়ার্ডে পাঠানো হয়েছে। মাত্র ১৫টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এর মধ্যে কুয়াশায় ৯ ঘণ্টার মতো ফেরি বন্ধ থাকায় উভয় ঘাটে যানজট দেখা দিয়েছে।

ঘাটে কর্তব্যরত ট্রাফিক বিভাগের জ্যেষ্ঠ পরিদর্শক তারক পাল বলেন, ফেরির সংকটের পাশাপাশি কুয়াশায় ফেরি বন্ধ থাকায় দীর্ঘ যানজট তৈরি হয়েছে। রাতে ছিনতাইকারীসহ দুষ্টচক্রের অপতৎপরতা বেড়ে যাওয়ায় তাঁরাও বিড়ম্বনায় আছেন। গত রাতে থানা-পুলিশের সঙ্গে তাঁরাও অভিযান চালিয়ে তিন ছিনতাইকারীকে গ্রেপ্তার করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন