default-image

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় ঘর পাওয়া ব্যক্তিদের উদ্দেশে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, এই ঘর কোন সরকার দিয়েছে তা মনে রাখতে হবে। এটি দিয়েছে আওয়ামী লীগ সরকার, নৌকা মার্কার সরকার। ভোটের সময়ও এ কথা মনে রাখতে হবে।

আজ শনিবার সকালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। গৃহহীনদের মধ্যে ঘরের জমির দলিল, খতিয়ান, ডিসিআর ও সনদপত্র হস্তান্তর উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। রাঙ্গুনিয়ায় ৬৫টি পরিবারকে ঘর দেওয়া হয়।

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানুষের অন্ন ও বস্ত্রের চাহিদা পূরণ করেছেন। এখন তিনি ঘরের চাহিদাও পূরণ করছেন। মুজিব বর্ষের উপহার হিসেবে ভূমি ও গৃহহীনদের মধ্যে ঘর বিতরণ করছেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভূমি ও গৃহহীন পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর জমি ও ঘর প্রদানের মূল অনুষ্ঠান দেখানো হয়। পরে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

তথ্যমন্ত্রী বলেন, বাসস্থানের সমস্যা এখনো দেশে থেকে গেছে। এই সমস্যাকে চিহ্নিত করে প্রধানমন্ত্রী মুজিব বর্ষে এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে সব গৃহহীন মানুষকে ঘর করে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। ৭০ হাজারের মতো পরিবারের কাছে জমিসহ ঘরের দলিল হস্তান্তর করে সেই উদ্যোগ তিনি বাস্তবায়ন করে চলেছেন।

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, বাংলাদেশ আগে ছিল খাদ্য ঘাটতির দেশ। এখন খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত হয়েছে। শহরের অলিগলিতে কিংবা গ্রামে ‘মা আমাকে একটু বাসি ভাত দেন’—ভিক্ষুকদের এমন ডাক শোনা যায় না; কারণ, বাসি ভাতের সমস্যা সমাধান হয়ে গেছে অনেক আগে। কোনো ভিক্ষুক চাল ভিক্ষা নেয় না; কারণ, চালের প্রয়োজন এখন আর নেই।

রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক, রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাজিব চৌধুরী প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন