বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঘাগড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম ঘুরে সাধারণ মানুষ ও প্রার্থীদের কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বিচ্ছিন্ন দু-একটি ঘটনা ছাড়া এখন পর্যন্ত নির্বাচনের পরিবেশ শান্ত আছে। তবে আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহজাহান সরকার ও বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমানের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে দিন দিন উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে।

মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম নামের এক ভোটার বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে তাঁদের প্রত্যাশা। নির্বাচনের দিন যদি কোনো প্রার্থীর পক্ষ থেকে সহিংসতার চেষ্টা করা হয়, তাহলে সাধারণ মানুষ তাতে যোগ দেবে না। হীরা মিয়া নামের একজন আওয়ামী লীগ কর্মী বলেন, নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে কোনো ধরনের উত্তেজনা সৃষ্টি করা হবে না, বিভিন্ন সভায় কর্মীদের এ কথা বলা হচ্ছে। তবে গত শুক্রবার বিএনপির প্রার্থী শামছুল আলমের কর্মীরা মিছিল করার সময় নৌকার পোস্টার ছিঁড়ে ফেলেছেন। এরপরও আওয়ামী লীগের কর্মীরা সংঘর্ষে জড়াননি।

গোপাল নগরবাজারে কথা হয় সাধারণ ভোটার ও বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমানের কয়েকজন কর্মী-সমর্থকের সঙ্গে। সেখানে আওয়ামী লীগের কর্মী আলতাফ হোসেন বলেন, ‘নানা কারণে আমরা এবার দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছি। এ কারণে আমাদের ওপর কিছুটা হুমকি আছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষ থেকে নির্বাচন পরিচালনা কমিটিতে থাকার জন্য জোর করে মানুষের সই নেওয়া হচ্ছে। এতে উত্তেজনা সৃষ্টি হচ্ছে। নির্বাচনের আগে এই উত্তেজনা বাড়তে থাকলে নির্বাচন ঘিরে শঙ্কা বাড়বে। মঙ্গলবার রাতে তালতলা এলাকায় বিদ্রোহী প্রার্থীর একজন কর্মীকে মারধর করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কর্মীরা।’

এসব অভিযোগ বানোয়াট দাবি করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শাহজাহান সরকার বলেন, ‘স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকেরাই উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করে এবং বক্তব্য দিয়ে নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছেন। আমাদের কোনো কর্মী কোনো ধরনের উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করছেন না। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই।’

বেশি আলোচনায় না থাকলেও বিএনপির প্রার্থী হিসেবে পরিচিত স্বতন্ত্র প্রার্থী হাফিজ উদ্দিন ও শামছুল আলম নির্বাচনে জয়ের বিষয়ে আশাবাদী। হাফিজ উদ্দিন বলেন, ‘গত ইউপি নির্বাচনে আমি বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ছিলাম। এবার দলীয় প্রার্থী না হলেও দলের কর্মীরা আমার পাশেই আছেন। সুষ্ঠু ভোট হলে আমার জয়ের সম্ভাবনা বেশি।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন