বিজ্ঞাপন

এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১০ বছর আগে রুক্কু মিয়ার সঙ্গে কলমাকান্দার কৈলাটি গ্রামের বজলুর রহমানের মেয়ে রুবিনা আক্তারের বিয়ে হয়। দাম্পত্য জীবনে তাঁদের নয় ও সাত বছরের দুই মেয়ে আছে। রুক্কু মিয়া নোয়াখালী ও গাজীপুর এলাকায় আরও দুটি বিয়ে করেন। এ নিয়ে রুবিনার সঙ্গে তাঁর দাম্পত্য কলহ চলছিল। গতকাল রুক্কু মিয়া ঈদ উপলক্ষে কৈলাটি গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে আসেন। রাতে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। রুক্কু মিয়ার রক্তাক্ত লাশ শোয়ার ঘরে পড়ে থাকার খবর পেয়ে আজ সকালে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। এ সময় রুবিনাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ টি এম মাহমুদুর রহমান এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে রুবিনা তাঁর স্বামীকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। তাঁকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন