বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল বুধবার রাতে খাবার খেয়ে জহিরুল তার কক্ষে ঘুমাতে যায়। এ সময় তার মা ও ছোট বোন পাশের অন্য একটি কক্ষে ঘুমাতে যান। সকালে জহিরুল ঘুম থেকে না ওঠায় তার মা ছেলের কক্ষে যান। এ সময় ছেলের গলাকাটা লাশ দেখে তিনি চিৎকার শুরু করেন। খবর পেয়ে কালকিনি থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসতিয়াক আশফাক প্রথম আলোকে বলেন, ‘মা ও ছেলে পাশাপাশি কক্ষে ঘুমানো ছিল। সকালে মা ছেলের কক্ষে ঢুকে দেখেন, বিছানায় ছেলের গলাকাটা লাশ পড়ে আছে। আমরা লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন করেছি। গলায় ছুরির কয়েকটি আঘাত আছে। এ ছাড়া শরীরে অন্য কোনো স্থানে আঘাতের চিহ্ন নেই।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন