বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ বুধবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে দাবি আদায়ে গঠিত কমিটির নেতারা জেলা প্রশাসকের হাতে ‘চট্টগ্রামের সঙ্গে ছিলাম, আছি ও থাকতে চাই’ শীর্ষক স্মারকলিপি তুলে দেন। এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাতে ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীর হাতেও একই দাবিতে স্মারকলিপি দেন কমিটির নেতারা।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, ফেনীবাসীর সঙ্গে বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের দীর্ঘদিনের আর্থসামাজিক, সাংস্কৃতিক সম্পর্ক রয়েছে।

স্মারকলিপি হাতে পেয়ে জেলা প্রশাসক আবু সেলিম মাহমুদ উল হাসান বলেন, তিনি স্মারকলিপিটি গুরুত্বসহকারে দ্রুত প্রধানমন্ত্রী বরাবর পাঠিয়ে দেবেন। এ সময় দাবি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আবু তাহের, যুগ্ম আহ্বায়ক আইনজীবী নুর হোসেন, জেলা বিএমএ সভাপতি শাহেদুল ইসলাম, সম্পাদক বিমল চন্দ্র দাস, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবদুল মোতালেব, কমিটির সদস্যসচিব ও ব্যবসায়ী নেতা পারভেজুল ইসলাম হাজারী, ফেনী আলিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মাহমুদুল হাসান, কমিটির সদস্য আসাদুজ্জমান, আবু তাহের ভূঞা, রফিকুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন, আরিফুল আমিন, এনামুল হক পাটোয়ারী, জহিরুল হক, আইনজীবী এম শাহজাহান, ব্যবসায়ী নেতা মোশারফ হোসেন ভূঞা, ইকবাল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপিতে ঐতিহ্যবাহী চট্টগ্রাম বিভাগে থাকার পক্ষে বেশ কিছু যুক্তি তুলে ধরা হয়। এতে বলা হয়, ফেনীবাসীর সঙ্গে বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের দীর্ঘদিনের আর্থসামাজিক, সাংস্কৃতিক সম্পর্ক রয়েছে। ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার একটি অংশ ও চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার একটি অংশ নিয়ে ফেনীর নদীর তীরে গড়ে তোলা হচ্ছে দেশের সর্ববৃহৎ ইকোনমিক জোন ‘বঙ্গবন্ধু শিল্পাঞ্চল’। গড়ে উঠতে শুরু করেছে বড় বড় শিল্পকারখানা। সেখানে কয়েক লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হবে। এতে দুই জেলার মেলবন্ধন আরও জোরদার হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন