গ্রেপ্তার তিনজন হলেন মো. মারুফ হাসান (৩৬), মো. ইসমাইল ওরফে নিলয় (২৭) ও মনছুর আলম (৪৪)। পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের মধ্যে মারুফ মুঠোফোন চুরির সঙ্গে জড়িত, অন্য দুজন চোরাই মুঠোফোনের ক্রেতা।

পুলিশ জানায়, নন্দনকানন থেকে রোববার বিকেলে মারুফকে চারটি মুঠোফোনসহ আটক করা হয়। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যে ইসমাইল ও মনছুরকে আটক করা হয়। তাঁদের কাছ থেকে আরও নয়টি মুঠোফোন উদ্ধার করা হয়েছে। ঈদ জামাত থেকে মুঠোফোন চুরির বিষয়ে দুজন কোতোয়ালি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযানে অংশ নেওয়া কোতোয়ালি থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) অনুপ কুমার বিশ্বাস প্রথম আলোকে বলেন, মুঠোফোনসহ বিভিন্ন জিনিস চুরির অভিযোগে মারুফকে গত বছর গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। এবার ঈদের জামাত থেকে যাঁরা মুঠোফোন চুরি করেছেন। তাঁদের একটি চক্র রয়েছে। চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান চলছে। উদ্ধার করা মুঠোফোন যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত মালিকদের ফেরত দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন