বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পুলিশ জানায়, পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে জঙ্গল লতিফপুর পাহাড়ি এলাকা থেকে আরিফুল ইসলামকে, পাকা রাস্তার মাথা এলাকা থেকে মো. নয়নকে ও বন্দর থানার পিসি রোডের নিমতলা থেকে আবদুল লতিফকে গ্রেপ্তার করা হয়। গত বছর কোতোয়ালি থানায় করা এক ধর্ষণের মামলায় নয়ন ও আরিফুল গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। পরে তাঁরা জামিনে মুক্তি পান।

পুলিশ জানায়, ধর্ষণের শিকার তরুণী পরিবারের সঙ্গে অভিমান করে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রামে চলে আসেন। পরে ফিরে যাওয়ার চেষ্টা করলেও টাকা না থাকায় যেতে পারেননি। এরপর রেললাইন দিয়ে হেঁটে আকবর শাহ থানার মীর আউলিয়া মাজারের পাশে একটি ঘরের সামনে ক্ষুধার্ত ও ক্লান্ত অবস্থায় বসে পড়েন। তখন একজন তাঁকে বাসায় কাজ দেওয়ার কথা বলে ওই খালি বাড়িতে নিয়ে যান।

ভুক্তভোগী তরুণী গ্রেপ্তার তিনজনকে শনাক্ত করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন