পুলিশ বলছে, গোলাগুলিতে আহত তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসীর নাম সাইফুল ইসলাম ওরফে বার্মা সাইফুল (৩২)। তিনি ১৮টি মামলার আসামি। আহত সাইফুলকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ জানায়, সন্ত্রাসী সাইফুলের কাছ থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, তিনটি গুলি ও তিনটি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় বায়েজিদ বোস্তামী থানায় মামলা করা হয়েছে।

গোলাগুলিতে বায়েজিদ বোস্তামী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাজিমুল ইসলাম, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সাইফুল ইসলাম ও রবিউল হোসেন আহত হয়েছেন। তাঁরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

বায়েজিদ বোস্তামী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান আজ বৃহস্পতিবার সকালে প্রথম আলোকে বলেন, লিংক রোড এলাকায় পুলিশের অস্থায়ী তল্লাশিচৌকি দেখে পালানোর চেষ্টা করেন সন্ত্রাসী সাইফুল। এ সময় পুলিশ তাঁকে ধরতে গেলে তিনি গুলি করেন। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও গুলি করে। এ গোলাগুলির ঘটনায় সন্ত্রাসী সাইফুল ও পুলিশের তিন সদস্য আহত হন। আহত অবস্থায় সন্ত্রাসী সাইফুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে আজ দুপুর ১২টায় বায়েজিদ বোস্তামী থানা কম্পাউন্ডে সংবাদ সম্মেলন করবে পুলিশ।