বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সম্পদের তথ্য গোপন

পুলিশ সদস্যের নাম মোহাম্মদ শাহজাহান। বর্তমানে ট্যুরিস্ট পুলিশ চট্টগ্রামে পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত। এর আগে জেলার লোহাগাড়া ও সন্দ্বীপ থানার ওসি ছিলেন।
আজ মঙ্গলবার দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২–এ কার্যালয়ের উপপরিচালক রতন কুমার দাশ বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, শাহজাহান অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার করে দুর্নীতি দমন কমিশনে দাখিল করা সম্পদ বিবরণীতে ৪৯ লাখ ৩৯ হাজার ১২৬ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন। পাশাপাশি জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ৭৮ লাখ ১ হাজার ৫২০ টাকার স্থাবর–অস্থাবর সম্পদ অর্জন করেন।

শাহজাহানের বাড়ি কুমিল্লার লালমাই কাতালিয়া এলাকায়। বর্তমানে নগরের খুলশী লালখান বাজার এলাকার হাইলেভেল রোডে থাকেন।

ব্যাংকের ১৬৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ব্যাংকের ১৬৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুই ব্যাংক কর্মকর্তাসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আসামিরা হলেন অগ্রণী ব্যাংক আছাদগঞ্জ শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক (সাময়িক বরখাস্ত ও বর্তমানে অবসরপ্রাপ্ত) এম মর্তুজ আলী চৌধুরী এবং প্রিন্সিপাল অফিসার ও বৈদেশিক বাণিজ্য বিভাগের ব্যবস্থাপক (সাময়িক বরখাস্ত) পলাশ রঞ্জন তালুকদার, মেসার্স জয়নাব ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আবদুল্লাহ মাহমুদ এবং তাঁর স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান রায়ান পিয়েরা। মঙ্গলবার দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১–এ মামলাটি করেন কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. ফজলুল বারী।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামিরা যোগসাজশে ঋণ মঞ্জুরিসীমা লঙ্ঘন করে ব্যাংকের ৯২ কোটি ১৮ লাখ ২৫ হাজার ৪৬২ টাকা আত্মসাৎ করেন। গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময়ে সুদাসলে যা ১৬৫ কোটি ৩৯ লাখ ৫৫ হাজার ৩৪৭ টাকায় পরিণত হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন