বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনেক দিন পর চট্টগ্রামে বইমেলার আয়োজন বসায় পাঠক-ক্রেতারা দারুণ উচ্ছ্বসিত। বইপ্রেমী পাঠক সুলতানা রাজিয়া প্রথম আলোকে বলেন, ‘করোনা মহামারির কারণে সবকিছুই থমকে ছিল। বইমেলাও হয়নি। পছন্দের অনেক বই কেনার সুযোগ পাইনি। সকালে প্রথম আলোতে বইমেলার খবর দেখার পর মেলায় আসার সিদ্ধান্ত নিই। আর বিকেলে বন্ধুদের নিয়ে মেলায় হাজির হই।’

বিকেল চারটার দিকে পাঠক-ক্রেতা সবাই মিলে মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের পরপরই জমজমাট হয়ে ওঠে মেলা প্রাঙ্গণ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাহিত্যিক ও সাংবাদিক বিশ্বজিৎ চৌধুরী, অধ্যাপক আহমেদ মাওলা, লেখক বাদল সৈয়দ, কবি জিন্নাহ চৌধুরী, ফ্যাশন ডিজাইনার রওশন আরা চৌধুরী, আখতারী ইসলাম, আবৃত্তিশিল্পী সুবর্ণা চৌধুরী, কবি অভীক ওসমান, আলী প্রয়াস প্রমুখ।

উদ্বোধনের পর এক আড্ডায় বিশ্বজিৎ চৌধুরী বলেন, প্রথমা প্রকাশন প্রতিবছরই চট্টগ্রামে বইমেলার আয়োজন করে। শিল্পকলা একাডেমির প্রাঙ্গণ মুখর হয়ে ওঠে পাঠক-ক্রেতাদের পদচারণে। প্রথমা প্রকাশন ও ভারতীয় বইগুলো অন্যান্য সময়ের তুলনায় মেলায় কম দামে বিক্রি হয়। ফলে এ মেলা নিয়ে পাঠকের বাড়তি আগ্রহ থাকে।

default-image

নগরের সাগরিকা থেকে শিল্পকলায় ঘুরতে এসেছিলেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ম্রাসাংচিং মারমা ও মাউচিং মারমা। বইমেলার আয়োজন দেখে সেখানে ঢুঁ মারেন তাঁরা। কিনে নেন দুটি বই। ম্রাসাংচিং মারমা প্রথম আলোকে বলেন, ‘অনেক দিন বই কেনা হয় না। অনলাইনে একটানা বই পড়তেও ভালো লাগে না। প্রথমার এ আয়োজন দেখে বই কেনার লোভ সামলাতে পারলাম না। পছন্দের দুটি বই কিনে নিয়েছি।’

প্রথমা প্রকাশন আয়োজিত একক এই বইমেলা চলবে আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত। প্রতিদিন বেলা দুইটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। তবে ছুটির দিনে মেলা চলবে বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। মেলা উপলক্ষে পাঠকদের জন্য থাকছে বিশেষ ছাড়। প্রথমার বই বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৬০ শতাংশ ছাড়ে। এ ছাড়া অন্যান্য প্রকাশনীর বইয়ে ছাড় থাকবে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত।

প্রথমা প্রকাশনের ব্যবস্থাপক জাকির হোসাইন বলেন, মেলায় প্রথমার বই ছাড়াও ভারতীয় নতুন-পুরোনো বই পাওয়া যাচ্ছে। সব মিলিয়ে প্রায় পাঁচ হাজার প্রকাশনীর বই নিয়ে এবার চট্টগ্রামে মেলা বসেছে। করোনা সংক্রমণ কমার পর প্রথমা চট্টগ্রামেই প্রথম বইমেলার আয়োজন করেছে। কারণ, এখানে বইপ্রেমীদের আনাগোনা বেশি।
মেলা প্রাঙ্গণে লেখক বাদল সৈয়দ প্রথম আলোকে বলেন, ‘করোনার কারণে দীর্ঘদিন ধরে আমরা লেখকেরা বইমেলায় একত্র হতে পারিনি। প্রথমা প্রকাশন আয়োজিত এ বইমেলায় আবার পুরোনো বন্ধুরা এক হয়েছি। আড্ডা দিচ্ছি। পাঠকেরা এ বইমেলায় প্রথমা ও অন্যান্য প্রকাশনীর অসাধারণ কিছু বই কেনার এবং দেখার সুযোগ পাবেন। বই কিনে সমৃদ্ধ হবেন। এ আয়োজন সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন