বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় গতকাল শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে যানবাহনের ব্যাপক চাপ ছিল। কালিয়াকৈর-নবীনগর সড়ক ও চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের দিকে ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়। মধ্যরাত থেকে সকাল ছয়টা পর্যন্ত যানবাহন চলাচল করেছে ধীরগতিতে। তবে সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যানজট কমতে থাকে।

চন্দ্রা এলাকায় দায়িত্বরত পুলিশের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গতকাল বিভিন্ন এলাকার অনেক শিল্পকারখানায় ছুটি ঘোষণা করা হয়। সেসব এলাকার শ্রমিকেরা বিকেলের পর রওনা দিলে রাতে চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় যানবাহনের চাপ বেড়ে যায় কয়েক গুণ। সেই চাপের কারণেই মূলত গতকাল দিবাগত মধ্যরাতে বেশ যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে নবীনগর সড়কে প্রায় ১০ কিলোমিটার এবং চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের দিকে ৫ কিলোমিটার যানজট তৈরি হয়। তবে পুলিশ রাত থেকেই যানজট নিরসনের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। যার ফলে সকাল ছয়টার পর থেকে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। সকাল ১০টা পর্যন্ত চন্দ্রা ত্রিমোড় এলাকায় তেমন কোনো যানজট হয়নি। তবে যানবাহনের চাপ রয়েছে ব্যাপক। এই এলাকায় যানবাহনগুলো স্বাভাবিক গতিতে চলতে না পারলে যানবাহনের লম্বা লাইন পড়ে যায়। অন্যদিকে চন্দ্রা মোড়ে শত শত মানুষ বাসে ওঠার জন্য অপেক্ষা করছে। এ কারণেও যানবাহন চলাচলে কিছুটা বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার কচুয়া গ্রামের হারুন মিয়া বলেন, গাইবান্ধা পর্যন্ত ৪০০ থেকে সাড়ে ৫০০ টাকার মধ্যে যাওয়া যায়। কিন্তু এখন ভাড়া চাচ্ছে দ্বিগুণ। যার যেমন খুশি, ভাড়া আদায় করছে। কাউকে কিছু বলাও সুযোগ নেই।

কোনাবাড়ী হাইওয়ে থানার ওসি ফিরোজ হোসেন বলেন, মহাসড়কে শুক্রবার রাতে কিছু সময়ের জন্য যানজট হয়েছিল। সকাল হতে হতে সেই যানজট নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। এখন সেখানে স্বাভাবিক গতিতে যানবাহন চলাচল করছে।

default-image

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ জানায়, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে গতকাল মধ্যরাতে যানবাহনের বেশ চাপ থাকলেও কোথাও যানজটের সৃষ্টি হয়নি। টঙ্গী, স্টেশন রোড, গাজীপুরা, মালেকের বাড়ি, বোর্ডবাজার, ভোগড়া মোড় ও চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় যানবাহনের ধীরগতি থাকলেও লম্বা যানজটের সৃষ্টি হয়নি।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার (ট্রাফিক) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, শনিবার সকাল পর্যন্ত কোথাও যানজটের সৃষ্টি হয়নি। সড়কে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা আছে। তারা সড়কের বিভিন্ন স্থানে কাজ করছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন