বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চমেক ছাত্রাবাসে গত ২৯ অক্টোবর রাতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মারামারি ও কক্ষ ভাঙচুরের ঘটনায় তিনজন আহত হন। ওই ঘটনার রেশ ধরে পরের দিন দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মাহাদি জে আকিবের ওপর হামলা হয়। এতে গুরুতর আহত হন তিনি। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় তাঁর একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

আহত মাহাদি দীর্ঘদিন হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসা শেষে গত বৃহস্পতিবার বাড়ি ফিরেছেন। ৩০ অক্টোবরের সংঘর্ষের পর অনির্দিষ্টকালের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক সাহেনা আক্তার প্রথম আলোকে বলেন, ‘কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে, তবে প্রতিবেদনে কী আছে এখনো পড়ে দেখিনি। আগামীকাল মঙ্গলবার একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে আলোচনার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

অপরদিকে অধ্যাপক এম আর খান প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা প্রতিবেদন দিয়েছি। তাতে কোনো সুপারিশ করা হয়নি। কেবল কিছু পর্যবেক্ষণ দেওয়া হয়েছে।’
তদন্ত কমিটি মূলত ওই দিনের সংঘর্ষে আহত ও প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্রদের সাক্ষ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদন তৈরি করেছে এবং তাতে হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগের বিবদমান দুটি পক্ষকে দায়ী করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন