ভোলায় চরফ্যাশনে আবদুর রশিদ হত্যা মামলায় ১৪ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ রোববার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ নুর ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন।

সাজা পাওয়া আসামিরা হলেন আবুল বাশার (৫৪), নুর হোসেন (৪৫), আবু নোমান (৩৫), মো. শাহাবুদ্দিন (৪৫), ফজলে করিম মুন্সি (৫১), কাঞ্চন পাটোয়ারী (৬০), বাসু মাঝি (৫০), সাদেক মাঝি (৫৫), সিরাজ হাওলাদার (৪৫), সামসুদ্দিন হাওলাদার (৫০), আ. জলিল (৫০), কাঞ্চন মিস্ত্রি (৪৫), শশীভূষণ ৫০) ও মো. আলাউদ্দিন (৪৫)। তাঁদের বাড়ি লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলায়।

এদের মধ্যে মামলার ১ নম্বর আসামি আবুল বাশারকে এক লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। অন্যদের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে দুই বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ রায় ঘোষণার সময় আবুল বাশার, আবু নোমান, মো. শাহাবুদ্দিন, সাদেক মাঝি, কাঞ্চন মিস্ত্রি ও মো. আলাউদ্দিন পলাতক ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

আদালত ও মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণ সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ৩০ মে সন্ধ্যায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে উপজেলার দক্ষিণফ্যাশন গ্রামের কর্তারহাট বাজারে নিজ বাড়ির সামনে আবদুর রশিদকে কুপিয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষ। এ ঘটনায় আবদুর রশিদের ভাই মো. হানিফ বাদী হয়ে ১৮ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

আসামি পক্ষের আইনজীবী ছিলেন সিদ্দিকুর রহমান, মোজাম্মেল হোসেন ও মো. লিটন। বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন আমিনুল ইসলাম সরমান ও শিহাব মাহমুদ।

মন্তব্য পড়ুন 0