বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় চাঁদপুর মডেল থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে তাঁকে তদন্তের স্বার্থে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুর রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ হোসাইন (৩১)। তিনি চাঁদপুর সদর উপজেলার তরপুরচণ্ডী ইউনিয়নের বাসিন্দা সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

গ্রেপ্তার হোসাইন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও অ্যাপ ব্যবহার করে উগ্রপন্থী মতবাদ প্রচার এবং অন্যদের সশস্ত্র জিহাদের প্রশিক্ষণ গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে আসছিলেন।

পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তারের সময় মোহাম্মদ হোসাইনের কাছ থেকে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল, দুটি সিম ও একটি মেমোরি কার্ড জব্দ করা হয়। হোসাইন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও অ্যাপ ব্যবহার করে উগ্রপন্থী মতবাদ প্রচার এবং অন্যদের সশস্ত্র জিহাদের প্রশিক্ষণ গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করে আসছিলেন। এ ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে তিনি ফেসবুকে ভুয়া আইডি ব্যবহার করে জনসাধারণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি এবং আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের মতাদর্শ অনলাইনে প্রচার করে আসছিলেন।

হোসাইনের বিরুদ্ধে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্যপদ গ্রহণ, সমর্থন, অপরাধ সংঘটনের ষড়যন্ত্র এবং সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে প্ররোচিত করার অভিযোগে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের সাইবার অপরাধ শাখার উপপরিদর্শক মো. ছাদেক দেওয়ান সন্ত্রাসবিরোধী আইন ২০০৯–এর (সংশোধনী-২০১৩) বিভিন্ন ধারায় মামলাটি করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন