default-image

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে নিজের ছোট ভাই রায়হান এহসান ওরফে রিহানকে (৫) অপহরণের অভিযোগে বড় ভাই ফাহাদ বিন ইহসান ওরফে তারেককে (২৫) আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার রাতে হাজীগঞ্জ থানায় একটি অপহরণ মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গত রোববার বিকেলে তারেক তাঁর ছোট ভাই রিহানকে অপহরণ করে নিয়ে কিডনি বিক্রি করবে বলে একটি চিঠি লিখে ঘরে রেখে যান। ওই রাতে রিহান ও তারেকের বাবা আবু তাহের পুলিশকে মৌখিকভাবে বিষয়টি জানান। পুলিশ চিঠিটি জব্দ করে।

পুলিশের হাতে আটক তারেক দাবি করেছেন, ‘আমি মায়ের কাছে ব্যবসার জন্য টাকা চেয়ে না পেয়ে আমার কিডনি বিক্রি করে ব্যবসা শুরু করি। তবুও আমার মা আমাকে ব্যবসার জন্য টাকা দেননি। অন্য আরেকজনকে আমার সামনে ২০ লাখ টাকা ধার দিয়েছেন। এ কারণে আমি ছোট ভাইকে নিয়ে যাই। তাঁরা যেন আমাকে টাকা দিতে বাধ্য হন।’ তবে তিনি দাবি করেন, অপহরণ করে ভাইয়ের কিডনি বিক্রির বিষয়টি শুধু ভয় দেখানোর জন্য করেছেন।

বিজ্ঞাপন

চিঠির সূত্র ধরে হাজীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন আবু তাহের। পরে কৌশলে তারেককে ৫ লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলে গতকাল বিকেলে তারেককে হাজীগঞ্জে নিয়ে গেলে পুলিশ তারেককে আটক করে।
তারেকের মা ফরিদা সুলতানা বলেন, ‘আমার বড় ছেলে তাঁর আপন ছোট ভাইয়ের সঙ্গে এমন করবে, এটা আমি কল্পনাও করতে পারিনি।’

হাজীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, ‘অপহরণকারীকে আটক করা হয়েছে এবং অপহৃত রিহানও আমাদের জিম্মায় আছে।’ তারেকের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার অপহরণকারীকে আদালতে পাঠানো হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন