বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চাঁদপুর সদর মডেল থানা-পুলিশ জানিয়েছে, রুবেল ও তাঁর বন্ধু যখন নদীতে ঝাঁপ দেন, তখন ওই এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়েছিল পুলিশ।

আর রুবেলের বন্ধু হাসান জানান, সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে তাঁরা পুরানবাজার এলাকায় ডাকাতিয়া নদীর খেয়াঘাটের সিঁড়িতে বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। এ সময় টর্চের আলো দেখে পুলিশ ভেবে তাঁরা নদীতে ঝাঁপ দেন। তিনি সাঁতরে ওপরে উঠে এলেও নিখোঁজ হন রুবেল। রাতভর কয়লাঘাট ও এর আশপাশে খোঁজ করেও রুবেলের সন্ধান পাওয়া যায়নি।

রুবেলের বাবা হুমায়ুন মিয়া জানান, রাত সাড়ে আটটার দিকে তিনি রুবেলকে হাসানের সঙ্গে বাড়ির পাশের রাস্তায় আড্ডা দিতে দেখেন। তাঁরা কখন নদীর পাড়ে গেছেন তা তিনি জানতেন না। পরে জানতে পারেন রুবেল পানিতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ হয়েছেন।

চাঁদপুর সদর মডেল থানার ওসি মুহাম্মাদ আবদুর রশিদ বলেন, পুলিশ ওই সময়ে নদীর পাড় এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযানে গিয়েছিল। এ সময় দুজন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে নদীতে ঝাঁপ দেন। উদ্ধার হওয়া লাশ আইনি প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন