দায়িত্ব নেওয়ার পরদিন গত বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে লিখিত বক্তব্য দেন এ এস এম আসাদ উজ্জামান। সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক ও বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে ভাইরাল হয়। এর প্রেক্ষাপটে গতকাল শুক্রবার তাঁকে তাৎক্ষণিক বদলি করা হয়। তাঁকে বর্তমানে মাদারীপুর হাইওয়ে আঞ্চলিক অফিসে সংযুক্ত করা হয়েছে। গতকালই তিনি ভাঙ্গা ছেড়ে গেছেন।

এ বিষয়ে হাইওয়ে পুলিশ মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মো. হামিদুল হক জানান, বিতর্কিত বক্তব্য প্রদান এবং সে বক্তব্য ভাইরাল হওয়ায় ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্ব পালনকারী টিআই এ এস এম আসাদ উজ্জামানকে তাৎক্ষণিক বদলি করা হয়েছে। ওই থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাহ আলমকে ওসির চলতি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন ওসির পদায়ন না হওয়া পর্যন্ত শাহ আলম এ দায়িত্ব পালন করবেন।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ওসির দায়িত্বে থাকা এসআই শাহ আলম জানান, বদলির আদেশ পেয়ে আসাদ উজ্জামান গতকাল মাদারীপুর চলে গেছেন। তবে তাঁকে কী কারণে তাৎক্ষণিক বদলি করা হয়েছে, বদলির আদেশে তা উল্লেখ করা হয়নি।

বক্তব্যটি ভাইরাল হওয়ার পর ওসির দায়িত্বে নিয়োজিত টিআই এ এস এম আসাদ উজ্জামান প্রথম আলোকে বলেছিলেন, এই চিঠি দিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছিলেন, ভাঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ মহাসড়কে চাঁদাবাজি করবে না। ‘তবে ভাষাগত কিছু ত্রুটি হতে পারে’—মন্তব্য করে বিষয়টি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করেছিলেন তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন