default-image

পিরোজপুরের ইন্দুরকানি উপজেলায় চাচাশ্বশুরকে হত্যার দায়ে এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। আজ সোমবার দুপুরে পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মুহা. মুহিদুজ্জামান এই রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই যুবক হলেন হাসিবুল ইসলাম (৩৩)। তিনি উপজেলার খোলপটুয়া গ্রামের বাসিন্দা। আর হত্যাকাণ্ডের শিকার রেজাউল করিম হাওলাদার (৪০) উপজেলার চর বলেশ্বর গ্রামের মৃত আবদুর রহমানের ছেলে। তিনি চণ্ডীপুর কে সি টেকনিক্যাল কলেজের অফিস সহকারী ছিলেন।

মামলার নথি ও আদালত-সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, হাসিবুল ইসলামের চাচাশ্বশুর ছিলেন রেজাউল করিম হাওলাদার। রেজাউল করিমের চাচাতো ভাইয়ের মেয়ে মুনিয়া আক্তারের স্বামী হাসিবুল। মুনিয়ার সঙ্গে হাসিবুলের পারিবারিক কলহ চলছিল। মুনিয়ার পক্ষ নেওয়ায় রেজাউলের ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন হাসিবুল। ২০১৮ সালের ১৮ নভেম্বর বিকেলে রেজাউল বাড়ি থেকে উপজেলার চণ্ডীপুর বাজারে যান। সেখানে হাসিবুল কুড়াল দিয়ে রেজাউলকে কুপিয়ে জখম করেন। পরে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় ওই দিন রাতেই নিহত রেজাউল করিম হাওলাদারের স্ত্রী নাসরিন আক্তার বাদী হয়ে হাসিবুল ইসলামকে আসামি করে স্থানীয় থানায় হত্যা মামলা করেন। ২০১৯ সালের ১৬ মার্চ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ইন্দুরকানি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম আসামি হাসিবুল ইসলামের নামে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। ১৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে বিচারক আসামির উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) খান মো. আলাউদ্দিন। আসামির পক্ষে আইনজীবী ছিলেন আহসানুল কবির। তিনি বলেন, ‘আমরা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন