ওই কলেজছাত্রীর ভাই সৌরভ বলেন, আজ বেলা সোয়া দুইটার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে থানার সামনে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ক্লাসে যাচ্ছিল সানিলা। এ সময় মুখোশধারী দুই যুবক তার মুখ চেপে ধরে তাকে উঠিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। সানিলা চিৎকার দিলে তার দুই হাতে ছুরিকাঘাত করেন ওই দুই যুবক। আহত সানিলার দুই হাতে ১৪টি সেলাই দেওয়া হয়েছে।

আহত কলেজছাত্রী সানিলা আক্তার বলে, ‘আমার মুখ চেপে ধরে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করেন মুখোশধারীরা। এ সময় পাশের একটি বাসার দরজা খোলার আওয়াজ পেয়ে দ্রুত পালিয়ে যান মুখোশধারীরা। পরে আমি আমার বাসায় কল করলে তাঁরা এসে আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।’

জানতে চাইলে চান্দিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আরিফুর রহমান বলেন, ‘ঘটনাটি শুনে তাৎক্ষণিকভাবে আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং আহত মেয়েটির সঙ্গে কথা বলি। এ ঘটনায় আমাদের একাধিক টিম কাজ করছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন