বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আন্দোলনরত শ্রমিকেরা বলেন, তিন মাস ধরে ডেনিম প্রসেসিং প্ল্যান্ট লিমিটেডের শ্রমিকদের কোনো ধরনের বেতন-ভাতা দেওয়া হচ্ছে না। নিয়ম অনুযায়ী প্রতি মাসের ১০ তারিখের মধ্যে তাঁদের বেতন দেওয়ার কথা। কিন্তু এক বছর ধরে অনিয়মিতভাবে বেতন-ভাতা দেওয়া হচ্ছে। সর্বশেষ তিন মাসে তাঁরা কোনো বেতন পাননি। এ পরিস্থিতিতে শ্রমিকেরা বেতন চাইলে কারখানা কর্তৃপক্ষ তাঁদের চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের হুমকি দেয় বলে অভিযোগ।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ওই কারখানার শ্রমিকেরা সড়কে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে আন্দোলনরত শ্রমিকেরা সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে শ্রমিকদের তোপের মুখে পড়েন চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আশরাফুন নাহার।

পরে ঘটনাস্থলে আসেন কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আরেফিন ছিদ্দিকী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফজাল হোসেন, চান্দিনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তপন বক্সী, জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার জুয়েল রানা, পৌর মেয়র শওকত হোসেন ভূঁইয়া, চান্দিনা থানার ওসি মোহাম্মদ আরিফুর রহমান, দেবীদ্বার থানার ওসি আরিফুর রহমান।

এরপর পুলিশের হস্তক্ষেপে ওই কারখানার মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) হাবিবুর রহমানকে মহাসড়কে ডেকে আনা হয়। পরে আগামীকাল বৃহস্পতিবার বকেয়া বেতন-ভাতাদি পরিশোধের আশ্বাস দিলে বেলা ১টা ৪০ মিনিটে অবরোধ তুলে নেন শ্রমিকেরা।

ডেনিম প্রসেসিং প্ল্যান্ট লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন ব্যাংক-সংক্রান্ত ঝামেলার কারণে তাঁরা সময়মতো বেতন দিতে পারেননি।

কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আরেফিন ছিদ্দিকী বলেন, বকেয়া বেতন-ভাতার দাবিতে পোশাক কারখানার শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করছিলেন। অনেক চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন