default-image

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় চারজন মিলে এক তরুণী গৃহকর্মীকে (২৫) ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে উপজেলার একটি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ওই তরুণীর করা মামলায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার তিনজন হলেন উপজেলার বাগড়া হঠাৎপাড়া এলাকার মামুন প্রামাণিক (৩৫), সোহাগ সরকার (২২) ও আবদুল খালেক (৫০)। পলাতক আছেন অপর আসামি বাগড়া চকপোতা গ্রামের দুলু শেখ (৩২)।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেলে ওই তরুণী বাসা-বাড়িতে গৃহকর্মী হিসেবে কাজের খোঁজে শেরপুরের ধুনট রোড এলাকায় আসেন। রাত আটটায় ধুনট রোড বাসস্ট্যান্ডে বাড়ি ফিরতে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন তিনি। এ সময় সোহাগ বাড়িতে কাজ দেওয়ার কথা বলে বাগড়া হঠাৎপাড়ায় নিয়ে যান। পরে সেখানে তাঁরা চারজন মিলে তাঁকে ধর্ষণ করেন। তরুণীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাঁকে উদ্ধার করেন এবং ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত তিনজনকে আটক করে পুলিশ সোপর্দ করেন। এ সময় পালিয়ে যান বাগড়া চকপোতা গ্রামের দুলু শেখ।

বিজ্ঞাপন

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বলেন, আটক তিনজনকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাঁদের আজ শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে বগুড়ার কারাগারে পাঠানো হবে। ধর্ষণের সঙ্গে জড়িত অপর একজনকে গ্রেপ্তারে পুলিশ তৎপরতা চালাচ্ছে। আর ওই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন