র‍্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্প সূত্রে জানা যায়, ভৈরব মাদকের জন্য স্পর্শকাতর এলাকা। এর মধ্যে আমলাপাড়া এলাকাটি মাদক অধ্যুষিত। ঈদ সামনে রেখে মাদকের ক্রয়–বিক্রয় বেড়েছে। এ পরিস্থিতিতে র‌্যাব আমলাপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। প্রথমে অভিযান চালানো হয় মাদক ব্যবসায়ী পাভেল মিয়ার বাড়িতে। ওই বাড়ি থেকে শাহাদাৎকে আটক করা হয়। পরে তাঁর দেখানো স্থান থেকে ১০২ কেজি গাঁজা ও ৬৬৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এ সময় তাঁর কাছ থেকে ২৪ হাজার টাকা জব্দ করা হয়। পরে অভিযান চালানো হয় উজ্জ্বল মিয়ার বাড়িতে। উজ্জ্বলের কাছ থেকে পাওয়া যায় ৫৩ কেজি ৫০০ গ্রাম গাঁজা।

র‍্যাবের কোম্পানি অধিনায়ক রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়ের বলেন, আটক হওয়া ব্যক্তিরা মাদকের বড় ব্যবসায়ী। তাঁরা বিভিন্ন স্থান থেকে মাদক এনে পরে ঢাকাসহ সারা দেশে সরবরাহ করে থাকেন। এ ঘটনায় র‌্যাব বাদী হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেছে। আটক ব্যক্তিদের ভৈরব থানা–পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।
আটক দুই ব্যক্তি র‌্যাবের কাছে মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। তাঁরা বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত এলাকা দিয়ে ভারত থেকে এসব মাদকদ্রব্য আসে। পরে তাঁদের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় জায়গায় পাঠানো হয়।