বিজ্ঞাপন

পুলিশ সদস্যরা কাছে গিয়ে কাগজপত্র দেখতে চান। কিন্তু কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই একজন কনস্টেবলকে ধাক্কা দিয়ে দৌড়ে পালিয়ে যান ওই চালক। কাগজপত্র নেই বলেই মোটরসাইকেলটি ফেলে চালক পালিয়ে যান বলে প্রথমে মনে করছিলেন পুলিশ সদস্যরা। কিন্তু মোটরসাইকেলের আসনটা স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি উঁচু। তাতে ভিন্ন কোনো ঘটনা আছে বলে সন্দেহ হয় তাঁদের। উৎসুক মানুষের উপস্থিতিতে আসনটি খুলে দেখা যায়, নিচের অংশটা গাঁজায় ঠাসা।

মোকামতলা ট্রাফিক ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক রেজাউল করিম খান প্রথম আলোকে বলেন, মোটরসাইকেলের আসনে সাধারণত ফোম থাকে। ফোমের বদলে স্থানটা গাঁজা দিয়ে ঠাসা ছিল। এভাবে মাদকের চালান বহন করছিলেন পালিয়ে যাওয়া ব্যক্তিটি। তাঁকে ধরার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। ১২৫ সিসির নিবন্ধনবিহীন মোটরসাইকেলটি জব্দ করে ফাঁড়িতে রাখা হয়েছে।

এর আগে গত ১ মে একই কায়দায় মোটরসাইকেলে গাঁজা বহনের সময় আটক হন আবু সাঈদ নামের এক ব্যক্তি। তিনি গাইবান্ধা সদর উপজেলার নয়নপুর গ্রামের বাসিন্দা। কুড়িগ্রাম থেকে মাদক নিয়ে বগুড়ায় আসার পথে মোকামতলা ট্রাফিক ফাঁড়ির সদস্যদের হাতে তিনি আটক হন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন