default-image

দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী চিবুকাদেবী মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাঁদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন উপজেলার কারেন্ট হাট মহাদানি এলাকার আকরাম আলী (৩৮), সৌরভ আলী (২৯), বিন্যাকুড়ি এলাকার জাকির হোসেন (৪৫), নান্দেরাই এলাকার মো. রাশেদ (৩২), বড় বাউল ডাক্তারপাড়া এলাকার আবুল কালাম আজাদ (৩৫), খোচনা ভগলুসাপাড়া এলাকার মো. আউয়াল (৩০) ও জোত সাতনালা এলাকার রুহল আমীন (৩০)।

চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি রাতে উপজেলার আত্রাই নদের তীরবর্তী শ্রীশ্রী চিবুকাদেবী মন্দিরে প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। মন্দিরে কালী প্রতিমার মুখমণ্ডল, শিবের গলা ভেঙে ফেলা হয়েছে। মনসা প্রতিমার কয়েকটি অংশ খণ্ড করে পাশের নদীতে ফেলে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে চিবুকাদেবী মন্দিরসহ উপজেলার ছয়টি মন্দিরে প্রতিমা ভাঙচুর করে দুর্বৃত্তরা। পরের দিন চিরিরবন্দর থানায় অজ্ঞাতনামা কয়েক ব্যক্তির নামে মামলা করেন মন্দির কমিটির সদস্য দুলাল চন্দ্র দাস।

চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বলেন, মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় করা মামলায় সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা অপরাধ স্বীকার করেছেন। এর সঙ্গে অন্য আরও কেউ জড়িত আছেন কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন