default-image

চুয়াডাঙ্গা থেকে অপহৃত তরুণীকে সাত দিন পর ঝিনাইদহ শহর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে গতকাল রোববার রাতে ওই তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। ওই তরুণীর (১৭) বাড়ি চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা পৌর এলাকায়। সে খুলনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্রী।

এ ঘটনায় করা অপহরণ মামলার দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার দুজন হলেন রংপুর কোতোয়ালি থানার আলমনগর এলাকার নোবেল আহমেদ (২৬) ও চুয়াডাঙ্গা শহরের সিঅ্যান্ডবি পাড়ার তারিফ হোসেন (২৫)। গ্রেপ্তার দুজনকে আজ সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হবে। ওই ছাত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানা-পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ওই তরুণী চুয়াডাঙ্গা শহরে চাচার বাড়িতে থাকত। ১১ এপ্রিল বিকেল চারটার দিকে চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের পাশে প্রাইভেট পড়তে যায় সে। এরপর থেকে সে নিখোঁজ ছিল। পরে তার চাচা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

বিজ্ঞাপন

সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ভবতোষ রায় বলেন, ওই তরুণীর সঙ্গে রংপুরের নোবেল আহমেদ নামের এক যুবকের যোগাযোগ ছিল। যদিও পরিবারের দাবি, নোবেল মেয়েটিকে উত্ত্যক্ত করতেন। নিখোঁজের পর তথ্যপ্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে ঝিনাইদহ শহরের একটি বাসা থেকে ওই তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান বলেন, ওই ছাত্রী অপহরণের ঘটনায় তার চাচা বাদী হয়ে রোববার রাতে মামলা করেন। নোবেল আহমেদ ও তারিফ হোসেনকে সেই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন