বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ সময় বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরীসহ বন বিভাগের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তাঁরা জানান, মুক্ত পরিবেশ ফিরে পেয়ে অনেকক্ষণ ধরে আনন্দ প্রকাশ করে উল্লুকটি। এ সময় উল্লুকটি চিৎকার করে রেসকিউ সেন্টারের আশপাশের এক গাছ থেকে অন্য গাছে লাফিয়ে বেড়ায়।

মো. রেজাউল করিম চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, উল্লুকটি শারীরিকভাবে সুস্থ থাকায় তাকে উদ্ধারের পরে লাউয়াছড়াতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ছাড়ার পরও উল্লুকটি অনেকক্ষণ আশপাশেই ছিল। লাউয়াছড়ায় প্রায় ৪০টি উল্লুক আছে। ওদের সঙ্গে সে দ্রুতই মিশে যাবে।

আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণবিষয়ক সংঘ (আইইউসিএন) বাংলাদেশের লাল তালিকা অনুযায়ী উল্লুক বাংলাদেশে মহাবিপন্ন একটি প্রাণী। উল্লুক সাধারণত ফল খায় আর উঁচু গাছে বাস করে। গাছে গাছেই এদের সারা জীবন কেটে যায়। মাটিতে নামার ঘটনা খুবই কম। তাই এদের বেঁচে থাকার জন্য দরকার ঘন প্রাকৃতিক বন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন