default-image

বরগুনার বেতাগী উপজেলার সরিষামুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমাম হাসান শিপন জোমাদ্দারের ওপর হামলায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ-সমাবেশ কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। রোববার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ঘণ্টাব্যাপী এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

সমাবেশে বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম গোলাম কবির, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আদনান খালিদ প্রমুখ। বক্তারা হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় বাসিন্দাদের ভাষ্য, শুক্রবার দুপুরে ইউনিয়নের কালিকাবাড়ী এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান ইমাম হাসানের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় তাঁকে বরগুনা জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাঁকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। তাঁর দুই পা ও ডান হাত কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। ধারালো অস্ত্রের কোপে হাড় কেটে ঝুলে আছে তাঁর বাঁ পা। আহত চেয়ারম্যানের স্বজনদের দাবি, কালিকাবাড়ী এলাকায় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইউসুফ শরীফের নেতৃত্বে ৭-৮ জনের একটি দল ধারালো অস্ত্র নিয়ে চেয়ারম্যান ইমাম হাসানের ওপর হামলা চালিয়েছে। পূর্বশত্রুতার জের ধরে এবং আসছে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এই হামলা চালানো হয়।

এ বিষয়ে বেতাগী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাখাওয়াত হোসেন জানান, ওই হামলার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একই ইউনিয়নের রফিকুল ইসলাম (৩৫) ও আবু তালেব (৩৫) নামের দুজনকে আটক করা হয়েছে। তাঁদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। হামলায় জড়িত অন্যদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে। ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।

মন্তব্য পড়ুন 0