বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গ্রামবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, উপজেলার মগটুলা ইউনিয়নের বৈরাটি গ্রামে গত শনিবার গভীর রাতে কৃষক আবদুল হাইয়ের একটি গাভি চুরি হয়। গতকাল সোমবার রাতে আবার একদল চোর গ্রামে ঢোকে। বিষয়টি টের পেয়ে গ্রামবাসী তাদের ঘেরাও করেন। এ সময় পাশের গ্রামের বাসিন্দা মো. মোজাম্মেল নামের এক ব্যক্তিকে আটক করেন তাঁরা। অন্যরা পালিয়ে যায়। এর ঘটনার পর আজ গ্রামবাসী সড়ক অবরোধ করেন।

বৈরাটি গ্রামের হারুন অর রশিদ (৬৫) বলেন, সন্দেহভাজন এক ব্যক্তি ধরার পড়ার পর কয়েকজনের নাম বলেছেন। কিন্তু পুলিশ তাঁদের ধরার চেষ্টা করছে না। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁরা সড়কে অবস্থান নেন।

গ্রামের কয়েকজন বলেন, ‘এলাকায় জুয়ার আসর বসে। গৃহস্থের গোয়ালের দিকে নজর জুয়াড়িদের। আমরা রাতে গরুর গলায় চেইন বা শিকল দিয়ে বেঁধে রাখি। তারপরও গরু রক্ষা করা যাচ্ছে না। লোহার শিকল কেটে ফেলার যন্ত্র নিয়ে চোর গ্রামে ঢুকছে। রাতে এসব যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।’

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল কাদের মিয়া আজ দুপুরে মুঠোফোনে বলেন, যাঁর গরু চুরি হয়েছে, তাঁর কাছ থেকে এজাহার নিয়ে মামলা গ্রহণ করার প্রক্রিয়া চলছে। ওই মামলায় সন্দেহভাজন মোজাম্মেলকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে রিমান্ডের আবেদন করা হবে। তাঁকে নিবিড় জিজ্ঞাসাবাদ করে তথ্য উদ্‌ঘাটনের চেষ্টা করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন