বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি দামুয়া গ্রাম ও আশপাশের এলাকায় গভীর রাতে রিকশা চুরি বেড়ে গেছে। এ কারণে গতকাল রাতে চালানো শেষ করে রিকশা বাড়ির ভেতরে রাখেন বাবু মিয়া। এরপর রিকশার সঙ্গে বাড়ির বৈদ্যুতিক তারের সংযোগ দিয়ে শুয়ে পড়েন। গভীর রাতে বাবু মিয়া ঘর থেকে বের হয়ে মনের অজান্তে রিকশায় হাত দেন। এতে সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়।

শেরপুর শহরের রিকশাচালক সাইদুর রহমান ও মাজেম উদ্দিন জানান, উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে গভীর রাতে রিকশা চুরির প্রবণতা বেড়েছে। সংঘবদ্ধ চোর ধরতেই রিকশাচালকেরা বাড়িতে রিকশা গ্যারেজ করে বিদ্যুৎ–সংযোগ দিয়ে রাখেন।

গাড়িদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন জানান, চোর ধরতে নিজের তৈরি ফাঁদে নিজেরই এমন মৃত্যু তাঁর ইউনিয়নে আগে কখনো ঘটেনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন