default-image

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হককে ঘেরাওয়ের ঘটনার জেরে গতকাল শনিবার রাতে সুনামগঞ্জের ছাতক থানায় হামলা ও ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় আজ রোববার একটি মামলা হয়েছে। ছাতক থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আনোয়ার মিয়ার করা ওই মামলায় ৯৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতপরিচয় আরও ৮০০ থেকে ৯০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বলেন, মামলায় পুলিশ ৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা গেছে, হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক ‘আটক’ হয়েছেন এমন খবর সুনামগঞ্জের ছাতক পৌর শহরে প্রচার হলে গতকাল রাত নয়টার দিকে শহরের বিভিন্ন এলাকায় হেফজতের নেতাকর্মী ও সমর্থকেরা জড়ো হন। পরে শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তাঁরা। বিক্ষোভ মিছিল চলাকালে শহরের কাস্টমস রোড এলাকায় কয়কটি দোকান ভাঙচুর করা হয়। এরপর মিছিল নিয়ে থানার সামনে গিয়ে থানায় ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকেন। এ সময় থানা প্রাঙ্গণে থাকা গোলঘর ও আসবাব ভাঙচুর করেন বিক্ষোভকারীরা। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফাঁকা গুলি ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে। এ সময় ইট-পাটকেলের আঘাতে আটজন পুলিশ সদস্য আহত হন। রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ছাতক পৌর শহরে বিক্ষোভ চলে। পরে আহত পুলিশ সদস্যদের ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন