default-image

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে এক ছাত্রকে ধর্ষণের ছবি তুলে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় মাদ্রাসাশিক্ষক আনোয়ারুল ইসলামকে (৩৩) আজ বৃহস্পতিবার কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার কফিল উদ্দীন হাফিজিয়া মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ৩ থেকে ৪ দিন আগে মাদ্রাসার ১৬ বছরের এক ছাত্রকে আনোয়ারুলের ধর্ষণের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি পুলিশ সুপারসহ (এসপি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আসে। এসপির নির্দেশে বিষয়টি তদন্ত করতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ইয়াছিন আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযানে নামে। ওই মাদ্রাসাশিক্ষককে আটক করা হয়। এ সময় তাঁর কাছ থেকে একটি মুঠোফোন ও দুটি সিম কার্ড জব্দ করা হয়। ওই মুঠোফোনে এই কিশোরসহ আরও কয়েক শিশু-কিশোরকে তাঁর ধর্ষণের ছবি পাওয়া গেছে।

পরিদর্শক ইয়াছিন আলম চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক হুমায়ন কবির বাদী হয়ে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে কালীগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় আনোয়ারুল ইসলামকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। এই শিক্ষক দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রদের ধর্ষণ করে ছবি তুলে রাখেন। তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আবারও ধর্ষণ করতেন তিনি। গ্রেপ্তার মাদ্রাসাশিক্ষককে আজ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন