বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছাত্রী মেসে আগুন লাগার জেরে আজ সকাল আটটা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের বাসভবন ‘দুখু মিয়া বাংলো’ ঘেরাও করে নতুন নির্মিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছাত্রী হল ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছাত্র হল চালুর দাবিতে বিক্ষোভ করেন। দুপুরের পর বিক্ষোভ কর্মসূচিটি অনশনে রূপ নেয়। ওই সময় উপাচার্য সৌমিত্র শেখর ক্যাম্পাসে ছিলেন না। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের খবর পেয়ে তিনি দুপুরের পর ক্যাম্পাসে যান। পরে ২১ জানুয়ারির মধ্যে হল দুটি চালু করার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা কর্মসূচি তুলে নেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান বলেন, ২১ জানুয়ারির মধ্যে নবনির্মিত দুটি হল চালুর আশ্বাস দিয়েছেন উপাচার্য। হল দুটির নির্মাণকাজ শেষ হলেও জনবল নিয়োগসহ বেশ কিছু বিষয় বাকি ছিল। এ কারণে হল দুটি চালু করা যায়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের জন্য একটি এবং ছাত্রীদের জন্য একটি হল রয়েছে। এই দুই হলের ধারণক্ষমতা পাঁচ শর কম। এ কারণে অধিকাংশ শিক্ষার্থীকে মেসে থাকতে হয়। নতুন নির্মিত দুটি হল চালু হলে অন্তত ২ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীর আবাসন নিশ্চিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন