default-image

নোয়াখালীতে বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলতে থাকা দুই ছাত্র-ছাত্রীকে (১৯) আটকে তাঁদের আপত্তিকর ভিডিও করে তা ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে টাকা নেওয়ার অভিযোগে মামলা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে সুধারাম থানায় তিনজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। তবে পুলিশ অভিযুক্ত ব্যক্তিদের কাউকে এখনো গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

মামলার এজাহারে ওই কলেজছাত্রী অভিযোগ করেছেন, গত বৃহস্পতিবার রাত আটটার দিকে এক সহপাঠী তাঁর (ছাত্রী) সঙ্গে দেখা করতে আসেন। তখন তাঁর মা–বাবা বাড়িতে ছিলেন না। ছোট ভাই নামাজ আদায় করতে গিয়েছিল। এ সময় বাড়ির ফটকে দাঁড়িয়ে তিনি সহপাঠীর সঙ্গে কথা বলছিলেন। হঠাৎ একই এলাকার পুলক মজুমদার, আকবর ও রায়হান এসে তাঁদের ঘিরে ধরেন। তাঁরা তাঁদের দুজনকে ঘরের ভেতর একটি কক্ষে আটকে রাখেন।

বিজ্ঞাপন

ওই ছাত্রীর অভিযোগ, অভিযুক্ত তিনজন অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তাঁর ও সহপাঠীর আপত্তিকর ছবি ও ভিডিওচিত্র ধারণ করেন। মুঠোফোনে ধারণ করা ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা দাবি করেন ওই তিনজন। একপর্যায়ে তাঁর সহপাঠী ছাত্র একজনের মাধ্যমে তাঁদের ১০ হাজার টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এরপর অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তাঁদের ছেড়ে দেন। ছাত্রীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন ও ছোট ভাই বাড়িতে ফিরে এলে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা এ বিষয়ে বাড়াবাড়ি করলে ধারণ করা ভিডিও ইন্টারনেট ও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে চলে যান।

সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাহেদ উদ্দিন মামলা দায়েরের তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, অভিযোগটি তদন্তের পাশাপাশি অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন