বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ধর্ষণের অভিযোগে ওই নারী আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে তাঁর সৎদেবর জয়নাল আবেদীন (৩৫) ও তাঁর সহযোগীকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ধর্ষণ মামলা করেছেন। দুই আসামিকে গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। ওই নারীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাঁকে কাল শুক্রবার বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গতকাল রাত আড়াইটার দিকে জয়নাল আবেদীন ও তাঁর সহযোগীকে নিয়ে অন্তঃসত্ত্বা নারীর ঘরে ঢোকেন। তাঁরা ছেলেমেয়েদের একটি কক্ষে বেঁধে রেখে ওই নারীকে নির্যাতন ও ধর্ষণ করেন। ধর্ষণের পর বাড়ি থেকে দেড় ভরি সোনা, ৫৫ হাজার টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র লুট করা হয়েছে। চলে যাওয়ার সময় বাড়ির বাইরে ওই নারীর হাত-পা বেঁধে রেখে গেছেন তাঁরা। তিনি বর্তমানে ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। অভিযুক্ত জয়নাল তাঁর স্বামীর সৎভাই।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জানিয়েছেন, ধর্ষণের ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তবে ওমানপ্রবাসী ও তাঁর ভাইদের পরিবারের মধ্যে বেশ কয়েক বছর ধরে জমিজমা নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে। সপ্তাহখানেক আগে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনাও ঘটেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন