default-image

যশোর সদর উপজেলায় ছেলের দরজার ডাসার আঘাতে বাবার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ শনিবার ভোরে খুলনায় হাসপাতালে নেওয়া পথে তিনি মারা যান। গতকাল শুক্রবার রাত ১১টার দিকে যশোর সদর উপজেলার বসুন্দিয়া কালীবটতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

মারা যাওয়া ওই ব্যক্তির নাম সরোয়ার হোসেন (৪৫)। তিনি যশোর সদর উপজেলার বসুন্দিয়া গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে। উপজেলার বসুন্দিয়া মোড় এলাকায় একটি দোকানের কর্মচারী ছিলেন সরোয়ার। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে নয়ন হোসেনকে (২২) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সরোয়ারের বোনের স্বামী এসকেন্দার ব্যাপারী বলেন, শুক্রবার রাতে সরোয়ার দোকান বন্ধ করে বাড়ি ফেরেন। এরপর পারিবারিক বিষয় নিয়ে তাঁর সঙ্গে স্ত্রী হাসিনা বেগমের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে সরোয়ার তাঁর স্ত্রী হাসিনাকে মারধর করেন। এ সময় তাঁদের ছেলে নয়ন হোসেন ঘরে ঘুমিয়ে ছিলেন। হাসিনা বেগম ঘুম থেকে ছেলেকে ডেকে তুলে তাঁকে মারধরের বিষয়টি জানান। নয়ন ক্ষুব্ধ হয়ে তালগাছের তৈরি ঘরের দরজার ডাসা দিয়ে তাঁর বাবার মাথায় আঘাত করেন। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরিবারের লোকজন সরোয়ার হোসেনকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হলে খুলনা হাসপাতালে আজ শনিবার ভোর চারটার দিকে তিনি মারা যান।

যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, অভিযুক্ত নয়নকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। লাশটির ময়নাতদন্ত করার জন্য যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন