বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ৯টি ইউপিতে আজ সকাল থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা সালমান সাকিব জকিগঞ্জ সদর, সুলতানপুর ও বারঠাকুরি ইউনিয়ন এবং উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফুল হক কাজলসার ও বারহাল ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে ছিলেন। নির্বাচন শুরু হওয়ার পর থেকেই তাঁদের আচরণ সন্দেহজনক ছিল বলে গোয়েন্দা তথ্যে পুলিশ ও জেলা প্রশাসন নিশ্চিত হয়।

বেলা সোয়া তিনটার দিকে জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিনের উপস্থিতিতে সালমান সাকিব ও আরিফুল হককে আটক করা হয়। এ সময় ওই দুই রিটার্নিং কর্মকর্তার গাড়ি তল্লাশি করে সিলমারা ১ হাজার ২০০ ব্যালেট পেপার এবং সিলবিহীন ৪৫৬ ব্যালেট পেপার উদ্ধার করা হয়। বিভিন্ন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত ইউপি সদস্যের প্রতীকে ৪০০ করে মোট ১ হাজার ২০০ ব্যালটে সিল মারা ছিল। এ ঘটনায় কাজলসার ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিত করা হয়।

জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, সিল মারা ব্যালট ও সিলবিহীন ব্যালটসহ দুই রিটার্নিং কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। তাঁদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে সিলেটের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফয়সল কাদের জানিয়েছেন, কাজলসার ইউপিতে নির্বাচন স্থগিত করার পাশাপাশি উপজেলার সুলতানপুর ইউপির এক কেন্দ্রের নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। সুলতানপুর ইউপিতে একটি কেন্দ্রে বেলা সোয়া তিনটার দিকে ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে পুকুরে ফেলে দিয়েছিল কিছু উচ্ছৃঙ্খল ব্যক্তি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন