কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা পৌরসভা মর্যাদায় দ্বিতীয় শ্রেণি। এখনো নিশ্চিত হয়নি নাগরিক সেবা। ১৬ জানুয়ারি পৌরসভার ভোটগ্রহণ। মেয়র পদে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন আনোয়ারুল কবির টুটুল। তিনি জাতীয় যুব জোট ভেড়ামারা শাখার সহসভাপতি। প্রথম আলোর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে নির্বাচন ও পৌরসভার সমস্যা-সম্ভাবনা নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।
default-image

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের তুলনায় আপনি বয়সে তরুণ এবং নির্বাচনে একেবারে নতুন মুখ। কী বলবেন?

আনোয়ারুল কবির: নবম শ্রেণি থেকে জাসদের রাজনীতি শুরু। জনপ্রতিনিধির নির্বাচন এটাই প্রথম। তবে আত্মীয়স্বজনেরা নির্বাচন করেছেন। তাঁদের সেসব নির্বাচনে কাজ করেছি। আর জাসদের সব নেতা–কর্মী আমার জন্য কাজ করছেন।

পৌরসভার বর্তমান চিত্র আপনি কীভাবে দেখছেন?

আনোয়ারুল কবির: ভেড়ামারা পৌরসভা নানা সমস্যায় জর্জরিত। সবচেয়ে বড় সমস্যা জলাবদ্ধতা। এটা নিরসনে বর্তমান মেয়র কোনো কাজই করেননি। পৌরসভা থেকে করসহ নানা কাজে জনগণের টাকা নেওয়া হয়। এসব দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। পৌরসভার ধনী থেকে গরিব সবাই ভুক্তভোগী।

মেয়র নির্বাচিত হলে কী করবেন?

আনোয়ারুল কবির: যদি জনগণ আমাকে মেয়র নির্বাচিত করেন, তবে সবকিছুর আগে শহরে জলাবদ্ধতা দূর করতে কাজ শুরু করব। পৌরসভা শতভাগ দুর্নীতিমুক্ত করব। জনগণকে সেবা দেওয়াই হবে মূল লক্ষ্য। শিশু–কিশোরদের মেধা বিকাশের জন্য পাবলিক লাইব্রেরি ও বিনোদন কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে।

প্রচারণায় প্রতিপক্ষকে নিয়ে ব্যাপক আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিতে দেখা যাচ্ছে, এটা কেন?

আনোয়ারুল কবির: আমি কটাক্ষ করে কাউকে কিছু বলি না। আমি চাঁদাবাজি করি না। অন্যায় করি না। কিছু কিছু লোক আমার বাবা ও পরিবার নিয়ে বাজে কথা বলে, আমাকে যদি কেউ গালি দেয়, তাহলে কি আমার আত্মীয়স্বজন বসে থাকবে। কাদা–ছোড়াছুড়ি সেই জায়গা থেকেই শুরু।

বিজ্ঞাপন

ভোটারদের কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

আনোয়ারুল কবির: ভোটাররা পরিবর্তন চান। বিশেষ করে পৌরবাসীর নারী ভোটাররা আমাকে ভোট দেওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন। তাঁরা বর্তমান মেয়রের প্রতি প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ।

আপনি মেয়রের চেয়ারে বসলে জনগণ কতটা আস্থা পাবে?

আনোয়ারুল কবির: সেটা চেয়ারে বসার পরই জনগণ বুঝতে পারবে।

কেমন ভোট পাবেন বলে আশা করছেন? নির্বাচনে প্রশাসনের ভূমিকা কী?

আনোয়ারুল কবির: ৬৫ ভাগ ভোট আমি পাব। জনগণ আমাকে ভোট দেবে। প্রশাসনের ভূমিকা আপাতত ঠিক আছে। প্রচার–প্রচারণায় কোনো বাধার মুখে পড়িনি। আমি আশাবাদী ভোটের দিন পরিবেশ ভালো থাকবে।

অভিযোগ আছে, প্রচারণায় আপনি ভোটারদের কাছে টানতে অসুদপায় অবলম্বন করছেন।

আনোয়ারুল কবির: আমি টাকা দিয়ে ভোটারদের কাছে টানছি না। ভালোবাসায় কাছে আসছে। আমার হাসিমুখ দেখেই পাশে আসছে। অভিযোগ সত্য নয়। শতভাগ নিশ্চিত আমি জয়ী হব। আমার আচরণে সবাই মুগ্ধ। মনে যদি ভালোবাসা না থাকে, টাকা দিয়ে কিছু হয় না।

প্রথম আলো: সাক্ষাৎকারের জন্য সময় দেওয়ায় ধন্যবাদ।
আনোয়ারুল কবির: আপনাকেও ধন্যবাদ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন