বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আবদুর রহমানের পরিবারের ভাষ্য, আজ দুপুরে আবদুর রহমান বাড়ির পাশের এক জমিতে আল বাঁধতে যান। এ সময় প্রতিবেশী কামাল পাশা, আনিসুর রহমানসহ তাঁদের পরিবারের ৮ থেকে ১০ জন এসে আবদুর রহমানকে বাধা দেন। এ সময় আবদুর রহমানের সঙ্গে তাঁদের বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে কামাল পাশাসহ তাঁর পরিবারের লোকজন আবদুর রহমানকে মারধর করলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে আবদুর রহমানের চিৎকার শুনে বাড়ির লোকজন ও স্থানীয় লোকজন এসে তাঁকে উদ্ধার করেন। আবদুর রহমানকে তাৎক্ষণিকভাবে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানা-পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

আবদুর রহমানের ছেলে গিয়াস উদ্দিন বলেন, কামাল পাশা ও তাঁর পরিবারের লোকজন তাঁর বাবাকে বেধড়ক মারধর করেছে। মারধরের একপর্যায়ে তাঁর বাবাকে টিপে হত্যা করা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করা হবে।

ঘটনার পর থেকে কামাল পাশা ও তাঁর পরিবারের লোকজন গা ঢাকা দিয়েছেন। কামাল পাশা ও তাঁর ভাই আনিসুর রহমানের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও কোনো সাড়া মেলেনি। তাই অভিযোগের বিষয়ে তাঁদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

জানতে চাইলে ব্রা‏হ্মণপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, হাসপাতালে নেওয়ার আগেই আবদুর রহমানের মৃত্যু হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে। অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন