default-image

জমিজমাসংক্রান্ত বিরোধের জেরে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় বাবলু সাকিদার (৬৫) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে। উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের নওপাড়া সরকারপাড়া গ্রামে গতকাল রোববার রাত নয়টার দিকে ওই ঘটনা ঘটে।

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় প্রতিবেশী আয়নাল হোসেন (৩৮) ও আনোয়ার হোসেন (৩২) নামের দুজনকে আসামি করে আজ সোমবার সকালে থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। নিহত বাবলু সাকিদারের ছেলে লোকমান হোসেন বাদী হয়ে মামলাটি করেন। তবে কেউ গ্রেপ্তার হননি।

পুলিশ ও ভুক্তভোগীর পরিবার জানায়, মামলায় অভিযুক্ত দুই ব্যক্তির সঙ্গে ২৫ শতক জায়গা নিয়ে সাত থেকে আট বছর ধরে বিরোধ চলে আসছে নিহত ব্যক্তির। এ নিয়ে কয়েক দফা গ্রাম্য সালিসও হয়। কিন্তু সুরাহা হয়নি। সর্বশেষ গতকাল রাতে জমির ভোগদখলকারী বাবলু সাকিদার তাঁর বাড়ি থেকে বের হয়ে হাঁটাপথ ধরে নওপাড়া হাটে যাচ্ছিলেন। সুযোগ বুঝে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তাঁকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেন। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর।

বিজ্ঞাপন

মোবারক হোসেন ও বেলাল হোসেন নামের দুই প্রত্যক্ষদর্শীর ভাষ্য, ‘হত্যাকাণ্ডের শিকার বাবলু সাকিদার আহত অবস্থায় চিৎকার করে বলছিলেন, আয়নাল তাঁকে কুপিয়ে পালিয়ে গেছেন। এর কিছুক্ষণ পর তিনি মারা যান।’

নিহত ব্যক্তির ছেলে হজরত আলী অভিযোগ করেন, জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বছর দুয়েক আগে মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তাঁদের বাড়িতে এসে তাঁকে কুপিয়ে জখম করেছিলেন। এ নিয়ে থানায় মামলা হলেও কোনো বিচার পাননি তিনি। এবার তাঁর বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

নিহত বাবলু সাকিদারের আরেক ছেলে ও মামলার বাদী লোকমান হোসেন অভিযোগ করেন, মামলার আসামিরা এলাকায় বিত্তশালী। এ কারণে তাঁর বাবার হত্যার বিচার পাওয়া নিয়ে তাঁর সংশয় আছে।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুর রাজ্জাক হত্যাকাণ্ডের খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, আসামিদের ধরতে চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন