default-image

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় জমি বিক্রির দালালি নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার রাতে পাটগ্রাম পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই যুবকের নাম শাহীন মিয়া (৩৩)। পৌরসভার বানিয়াপাড়া গ্রামের সুলতান আলীর ছেলে তিনি। এ ঘটনায় গতকাল রাতে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার তিনজন হলেন বানিয়াপাড়া গ্রামের দুলাল হোসেন (৫৫), ভুট্টু মিয়া (৪৩) ও তাঁর ছেলে শামীম মিয়া (২১)।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কিছুদিন ধরে বানিয়াপাড়া গ্রামে একটি জমি ক্রয়-বিক্রয় নিয়ে কথা চলছে। এতে দালালির কাজ করে আসছিলেন বুলু মিয়া (৪৮) ও আবদুল কাদের (৪২)। এ নিয়ে গতকাল বিকেল পাঁচটার দিকে পৌরসভার আন্তজেলা মোড় এলাকায় দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে দুই পক্ষের লোকজন ছুরি, লাঠিসোঁটা ও রড নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে আবদুল কাদেরের ছোট ভাই শাহীন মিয়া গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন আহত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত সাড়ে নয়টার দিকে তিনি মারা যান।

বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় নিহত শাহীনের ভাই আবদুল কাদের গতকাল রাতে বাদী হয়ে ১৭ জনের নামে পাটগ্রাম থানায় হত্যা মামলা করেন।

পাটগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত বলেন, নিহত যুবকের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য লালমনিরহাট হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় করা মামলায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আজ দুপুর ১২টার দিকে তাঁদের লালমনিরহাট জেলা আদালতে পাঠানো হয়। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন